সর্বশেষ সংবাদ ::
FacebookMySpaceTwitterDiggDeliciousStumbleuponGoogle BookmarksRedditNewsvineTechnoratiLinkedinMixxRSS Feed

৩৯তম বিশ্ববিদ্যালয় দিবস উদ্যাপন উপলক্ষে ইবি’র নানা কর্মসূচি গ্রহণ

৩৯তম বিশ্ববিদ্যালয় দিবস উদ্যাপন উপলক্ষে ইবি’র নানা কর্মসূচি গ্রহণআগামী ২২ নভেম্বর ৩৯তম বিশ্ববিদ্যালয় দিবস জাঁকজমকপূর্ণভাবে উদ্যাপন উপলক্ষে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করেছেন। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে জাতীয় পতাকা ও বিশ্ববিদ্যালয় পতাকা উত্তোলন, বর্ণাঢ্য আনন্দ শোভাযাত্রা এবং আলোচনাসভা।

কর্মশালায় বক্তব্য রাখছেন প্রধান অতিথি ও রিসোর্স পার্সন প্রফেসর ড. মোঃ হারুন-উর-রশিদ আসকারী।

দিবসটি উপলক্ষে ঐদিন সকাল ৯টা ৩০মিনিটে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন ভবন চত্বরে জাতীয় সঙ্গীত বাজিয়ে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হবে। জাতীয় পতাকা উত্তোলন করবেন উপাচার্য প্রফেসর ড. মোঃ হারুন-উর-রশিদ আসকারী এবং বিশ্ববিদ্যালয় পতাকা উত্তোলন করবেন উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. মোঃ শাহিনুর রহমান। এসময় ট্রেজারার প্রফেসর ড. মোঃ সেলিম তোহা ও রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) এস. এম আব্দুল লতিফ তাঁদের সঙ্গে থাকবেন। সকাল ১০টায় প্রশাসন ভবন চত্বরে শান্তি ও আনন্দের প্রতীক পায়রা ও বেলুন উড়িয়ে আনন্দ শোভাযাত্রার উদ্বোধন এবং এরপর আনন্দ শোভাযাত্রা শুরু হবে। শোভাযাত্রাটি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন ভবন চত্বর হতে শুরু হয়ে কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার, চিকিৎসা কেন্দ্র ও ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদের সামনে দিয়ে বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমান মিলনায়তনে গিয়ে শেষ হবে। আনন্দ শোভাযাত্রায় নিজ-নিজ ব্যানার, ক্যাপ, প্লাকার্ড ও ফেস্টুনসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল বিভাগ, হল, অফিস এবং ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় ল্যাবরেটরি স্কুল এন্ড কলেজের শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারী ও ছাত্র-ছাত্রীরা অংশগ্রহণ করবেন। বেলা ১১টা ৩০মিনিটে বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমান মিলনায়তনে আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হবে। আলোচনাসভায় উপাচার্য প্রফেসর ড. মোঃ হারুন-উর-রশিদ আসকারী প্রধান অতিথি এবং উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. মোঃ শাহিনুর রহমান ও ট্রেজারার প্রফেসর ড. মোঃ সেলিম তোহা বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন। সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) এস.এম আব্দুল লতিফ। সভাপতিত্ব করবেন ৩৯তম বিশ্ববিদ্যালয় দিবস উদ্যাপন উপ-কমিটির আহ্বায়ক প্রফেসর ড. রুহুল কে এম সালেহ। ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি, কর্মকর্তা সমিতি, সহায়ক কর্মচারী সমিতি ও সাধারণ কর্মচারী সমিতির সভাপতিবৃন্দ আলোচনাসভায় বক্তব্য রাখবেন। আলোচনাসভা শেষে বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নতি, শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা করে দোয়া ও মোনজাত অনুষ্ঠিত হবে।